1. rsumon83@gmail.com : Gobi Khobor : Mostofa Kamal
  2. omar1@gobikhobor.com : omar Faruk : omar Faruk
  3. ariful.bpi2012@gmail.com : Ariful Islam : Ariful Islam
  4. omar@gobikhobor.com : omar Faruk : omar Faruk
  5. rsaidul34@gmail.com : Saidul Islam : Saidul Islam
টাকার মাধ্যমে ঘরে করোনা ভাইরাস বয়ে আনছেন না তো? - গোবি খবর
শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১০:০৮ অপরাহ্ন

টাকার মাধ্যমে ঘরে করোনা ভাইরাস বয়ে আনছেন না তো?

  • আপডেট করা হয়েছে : সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০
  • ৬১ বার পঠিত

ছবি বিবিসি বাংলা

মেহেদী হাসান: কাগজের নোট বা ধাতব মুদ্রার মাধ্যমে জীবানুর সংক্রমণ নতুন কোনো ঘটনা নয়। প্রায়ই টাকার মাধ্যমে জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার খবর পাওয়া যায়। করোনা আতঙ্কের মাঝে নতুন করে আবার সেই শঙ্কা মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে। প্রতিদিন শতশত হাত বদল হওয়া ‘টাকা’ করোনাভাইরাসের নীরব বাহকের ভূমিকা পালন করছে না তো? খবর বিবিসি বাংলা

কভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে টাকায় ভাইরাস স্থানন্তর হওয়ার সম্ভবনা থাকে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (who) এর তথ্য মতে, করোনাভাইরাস পোষক দেহ ব্যতিত ২৪-৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত বাঁচতে পারে। সুতরাং এই সময়সীমার মধ্যে টাকার সাথে সাথে করোনাভাইরাসেরও লেনদেন ঘটে।

জনপ্রিয় মার্কিন সংবাদ মাধ্যম ‘সিএনবিসি’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘চীনের উহান প্রদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমিত হওয়ার পর ভাইরাস বহণের অন্যতম মাধ্যম হিসেবে ব্যাংক নোটকে চিহ্নিত করেছে চীন সরকার। তারা উহানে ব্যবহৃত নোটগুলো দ্রুততম সময়ে সংগ্রহ করে এবং ভাইরাসের বিস্তার রোধে নোটগুলোকে গত ফেব্রুয়ারিতে আল্ট্রাভায়োলেট বা তাপ চিকিৎসার মাধ্যমে ভাইরাসমুক্ত করে। এরপরও চীন সরকার সকলকেই ডিজিটাল ব্যাংকিং করার জন্য অনুরোধ করেছে। এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও বারবার ডিজিটাল বা নোট বিহীন লেনদেনের কথা বলেছে। সংস্থাটি আরো বলেছে, ব্যাংক নোট স্পর্শ করার পর অবশ্যই ভালোভাবে হাত ধুয়ে ফেলতে হবে।

Comments

comments

এই খবর সবার সাথে শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর

গোবিন্দগঞ্জ ও তৎসংলগ্ন এলাকার জন্য

সারাদেশের জন্য

© স্বত্ব গোবিখবর ২০১৩-২০২০

কারিগরি সহযোগিতায় Pigeon Soft