সর্বশেষ সংবাদ

ধামইরহাটে নির্যাতন সইতে না পেয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ

 

মো.হারুন আল রশীদ,ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি

নওগাঁর ধামইরহাটে পারিবারিক কলহের জের ধরে গৃহবধু রাবিয়া খাতুন (২৮) নির্যাতন সইতে না পেয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। স্বামী ও তার স্বজনরা গৃহবধুকে অমানবিকভাবে পিটিয়ে জখম করেছে। এদিকে বিষয়টি সুষ্টু বিচারের আশায় স্বামীসহ ৩জনকে আসামী করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে রাবিয়া খাতুন।

ধামইরহাট থানায় অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নের অন্তর্গত চৌঘাট কাজল গ্রামের মৃত সাইফুল ইসলামের ছেলে মো. গোলাপ হোসেন (৩৫) এর সাথে রাবিয়া খাতুন (৩০) এর বিয়ে হয় প্রায় ১৩ বছর পূর্বে। রাবিয়া খাতুন পাশ্ববর্তী সাপাহার উপজেলার তুলশিপাড়া গ্রামের গোলাম মোস্তফার মেয়ে। বিয়ের কয়েক বছর পর স্বামী-স্ত্রীর সাথে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রায় ঝগড়া লেগে থাকতো। বর্তমানে রাবিয়া খাতুন দুই সন্তানের জননী। গোলাপ হোসেন ৪ লক্ষ টাকা রাবিয়ার কাছ থেকে যৌতুক হিসেব দাবী করে আসতো। কিন্তু রাবিয়ার বাবা অসহায় গরীব এ টাকা তাদের পক্ষে দেয়া সম্ভব হয়নি। গত সোমবার সকালে এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মাঝে কথাকাটির এক পর্যায়ে তাকে এলোপাথাড়িভাবে মারধর করে জখম করে বাড়ী থেকে বের করে দেয়। মারধরে গোলাপ হোসেন তার বোন এবারন বিবি ও ছোট ভাই আতোয়ার হোসেন অংশ নেয়। বর্তমানে রাবিয়া খাতুন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ব্যাপারে রাবিয়া বাদী হয়ে গোলাপ হোসেনসহ ৩জনকে আসামী করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ধামইরহাট থানার উপপরিদর্শক মো.সবুজ মিয়া জানান, বিয়ষটি নিয়ে রাবিয়া খাতুন একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Comments

comments

Leave a Reply