সর্বশেষ সংবাদ

ধামইরহাটে মালিক কর্তৃক শ্রমিক নির্যাতন

মো.হারুন আল রশীদ, ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি:
নওগাঁর ধামইরহাটে মালিকের কাছে পাওনা টাকা চাওয়ায় শ্রমিককে উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এবিষয়ে নির্যাতিত শ্রমিক বাদি হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।


ধামইরহাট থানায় অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার জাহানপুর ইউনিয়নের অন্তর্গত বড়শিবপুর (কাজিপাড়া) এলাকার শ্রী রবিয়া সিং এর ছেলে শ্রী জহরলাল (৪৮) সিং পার্শ্ববর্তী পত্নীতলা উপজেলার পাটিচড়া ইউনিয়নের একটি ইট ভাটায় লেবার সরদার হিসেবে কাজ করতেন। তিনি ওই ইট ভাটার মালিক মৃত বিজয় চৌধুরীর ছেলে সুজন চৌধুরী (৫৫) কর্তৃক মজুরী ও খোরাকি বাবদ প্রায় ১লক্ষ পাঁচ হাজার পেয়ে থাকেন। আর এই পাওনা টাকা সে দীর্ঘ কয়েক সপ্তাহ ধরে চাইলে মালিকের কাছ থেকে পাওনা টাকা না পাওয়ায় বাকি শ্রমিকরা ভাটার কাজ ফেলে চলে যায়। আর শ্রমিক চলে যাওয়ায় ভাটার মালিক এক পর্যায়ে চড়াও হয়ে গত শনিবার দুপরে প্রায় ১০ থেকে ১২টি মটরসাইকেল নিয়ে এসে মঙ্গলবাড়ি বাজার থেকে জহরলাল সিং কে তুলে নিয়ে যায়। পরে মালিক সুজন চৌধুরীর নেতৃত্বে ভাটার ম্যানেজার বাবুল হোসেন (৪৫) ও শাহীন আহমেদ (৩৮) সহ আরো কয়েজন মিলে শ্রমিক জহরলাল কে ভাটার আগুনে ফেলে প্রাণে মারার হুমকি প্রদান করে থাকেন এবং লাঠি, রড দিয়ে শরীরের নানান অংশে আঘাত করে জোর পূর্বক সাদা স্টাম্পে সাক্ষর করে নেয়। পরে তাকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও থানা পুলিশের সহায়তায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তী করানো হয়।

ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শামীম হাসান সরদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ একজন আসামীকে আটক করেছেন এবং জিঙ্গাসাবাদের জন্য কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Comments

comments

Leave a Reply