সর্বশেষ সংবাদ

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন

গোবিখবর ডেস্ক: রাষ্ট্রপতি মো.আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন।
রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী আজ সকালে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতার সমাধিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের মাধ্যমে এই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
প্রথমে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতার সমাধিসৌধের বেদীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।
পুষ্পাঞ্জলি অর্পণের পর স্বাধীনতার এই মহান স্থপতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের অংশ হিসেবে তাঁরা সেখানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় বিউগলে করুণ সুর রাজানো হয়।
সশস্ত্র বাহিনীর একটি সুসজ্জিত চৌকষ দল গার্ড অব অনার প্রদান করেন।
আবদুল হামিদ এবং শেখ হাসিনা ফাতেহা পাঠ করেন ও জাতির পিতা এবং ’৭৫ এর ১৫ আগস্ট শহীদদের আত্মার শান্তি কামণা করে বিশেষ মোনাজাতে শরিক হন।
জাতির পিতার ছোট মেয়ে শেখ রেহানা, প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা ওয়াজেদ হোসেন এবং শেখ রেহানার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সভাপতি মন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম এবং কৃষিমন্ত্রী ড. মুহম্মাদ আব্দুর রাজ্জাক, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি, প্রবাসীকল্যাণ এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদ, শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল, ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, জনপ্রশাসন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টাার শেখ ফজলে নূর তাপস, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামিম এবং শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
অন্যান্যের মধ্যে আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য মুহম্মদ ফারুক খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং আব্দুর রহমান, কেন্দ্রিয় নেতা আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এবং শেখ হেলাল উদ্দিন, দলের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এবং আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মীর্জা আজম এবং এসএম কামাল হোসেইন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়–য়া, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি শেখ ফজলে শামস পরশ এবং সালাউদ্দিন জুয়েল এমপি উপস্থিত ছিলেন।
একই সঙ্গে, মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী, বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন, পুলিশের আইজিপি ড. মুহম্মদ জাভেদ পাটোয়ারী, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, পিএমও সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন সহ আওয়ামী লীগের জেষ্ঠ্য নেতৃবৃন্দ এবং পদস্থ বেসামরিক এবং সামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ ও উপস্থিত ছিলেন।
পরে, রাষ্ট্রপতি সমাধিসৌধ প্রাঙ্গনে রক্ষিত পরিদর্শক বইয়ে স্বাক্ষর করেন।
এরআগে রাষ্ট্রপতি জাতির জনকের সমাধি প্রাঙ্গণে পৌঁছলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে স্বাগত জানান। শেখ রেহানা, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এবং শেখ হেলাল উদ্দিন এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন।
প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা পরে দলের জেষ্ঠ্য নেতৃবৃন্দকে সঙ্গে নিয়ে দলের পক্ষ থেকে জাতির পিতার সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।
বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের ওপর দিয়ে বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টারগুলোর লাল-সবুজ আবির ছড়িয়ে মনোজ্ঞ প্রদর্শনী করেছে। হেলিকপ্টারগুলোতে জাতিয় পতাকা এবং মুজিববর্ষের লোগো খচিত ছিল।
পরে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী সমাধি প্রাঙ্গণে মিলাদ এবং দোয়া মাহফিলেও অংশগ্রহণ করেন।
সকালে রাজধানীর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে রক্ষিত জাতির পিতার প্রতিকৃতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণের পর পরই প্রধানমন্ত্রী সরাসরি জাতির পিতার সমাধিসৌধ টুঙ্গিপাড়ায় আসেন।
জাতির পিতার জন্মদিনটি সারাদেশে জাতীয় শিশু দিবস হিসেবেও উদযাপিত হচ্ছে।
কিন্তু, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে এবারের জন্মদিনটি ভিন্ন মাত্রা লাভ করেছে। আজ থেকে শুরু হচ্ছে ‘মুজিববর্ষ’। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ২৬ মার্চ ২০২১ সাল পর্যন্ত তা চলবে। বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার মধ্যদিয়ে সারাদেশে যেমন তেমনি ইউনেস্কোর উদ্যোগে সমগ্রবিশ্বে ও উদযাপিত হবে মুজিববর্ষ। দেশবাসীর মত বিশ্ববাসীও বছরব্যাপী নানা অনুষ্ঠানমালার মধ্যদিয়ে বাঙালি জাতি রাষ্ট্রের রুপকারকে শ্রদ্ধা জানাবে।

Comments

comments