সর্বশেষ সংবাদ

ধামইরহাটে আদিবাসীদের সম্পত্তি রক্ষার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন


মো.হারুন আল রশীদ,ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ
নওগাঁর ধামইরহাটে আদিবাসী সম্প্রদায়ের সম্পত্তি রক্ষার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল রবিবার দুপুর ২টায় ধামইরহাট প্রেসক্লাবে এসসি আলবার্ট সরেন,যোসেফ বাস্কে পরিবার এবং ধামইরহাট আদিবাসী সমাজের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ সান্তাল বাইসি এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি এসসি আলবার্ট সরেন। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন,উপজেলার ধামইরহাট ইউনিয়নের অন্তর্গত জগৎনগর মৌজার জেএল নং ৮৯,হাল খতিয়ান নং-১০৭, হাল দাগ নং ৮২৫-৮৩১,৮৩৩-৮৩৫ এবং ৮৩৭ জমি পরিমাণ ৫.১৯ একর এবং জগদল মৌজা,জেএল নং-৮৮,হাল খতিয়ান ১৮৭,হাল দাগ নং-৭৭৩,৭৭৪,৭৭৭, জমির পরিমাণ ২.৯৭ একর। দুই মৌজায় মোট জমির পরিমাণ ৮.১৬ একর এর মধ্যে ৭.৫০ একর জগদল গ্রামের মৃত রাগাৎ বাস্কের ছেলে যোসেফ বাস্কে ভোগ দখল করছেন। ওই দখলীয় সম্পত্তি মইশড় গ্রামের মৃত খালেকুজ্জামান মাস্টারের দুই ছেলে আবু সাঈদ মো. জাহাঙ্গীর আলম ও রেজাউন নবী গং এবং ধামইরহাট পৌরসভার উত্তর চকযদু মহল্লার মৃত নজিমুদ্দিনের দুই ছেলে মো.আইয়ুব হোসেন ও আব্দুল মান্নান গং জবর দখলের পাঁয়তারা করছে। ওই জমি ছেড়ে দেয়ার জন্য প্রায় হুমকি-ধামকি প্রদান করছে। বিষয়টি নিয়ে যোসেফ বাস্কে বাদী হয়ে ধামইরহাট থানায় চলতি মাসের ২২ ফেব্রুয়ারী একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অপরদিকে যোসেফ বাস্কে মহামান্য হাইকোর্ট রিভিশন মামলা ৪৪৩৯/২০১৪ দায়েরের প্রেক্ষিতে মহামান্য আদালত গত ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসের ১৩ তারিখে ওই জমিতে স্থায়ী স্টাটাসকো আদেশ দেন। আদালতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জাহাঙ্গীর গং ওই জমি দখলের পাঁয়তারা করছে। এমতাবস্থায় আদিবাসী সমাজের জোর দাবী আমাদের দখলীয় সম্পত্তিতে যেন কোনভাবে ওই মহলটি জবর দখল করতে না পারে সে ব্যাপারে সরকারের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও সিভিল প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছেন। এছাড়া বিষয়টির সুষ্টু সমাধানের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আর্কষণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন যোসেফ বাক্সে, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাবিনা এক্কা, কুরশীদ পাহান, নরেন হাসদা, সুরেশ উরাও, আদিবাসী নেত্রী সুরমনি পাহান, সাবেক পারগানা চুড়কা মার্ডী, সহকারি অধ্যাপক আননচিয়েতা মারার্ন্ডী, বাংলাদেশ সান্তাল পরিষদের ধামইরহাট উপজেলা সেক্রেটারী দীনেশ বাস্কে, মুক্তিযোদ্ধা মার্টিন হাসদা, আদিবাসী যুবনেতা রিপন বাস্কে প্রমুখ।

Comments

comments