সর্বশেষ সংবাদ

পলাশবাড়ীতে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড

আরিফ উদ্দিন স্টাফ রিপোর্টার, গাইবান্ধা থেকে: গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার আলোচিত স্ত্রী সামিনা বেগমকে হত্যার দায়ে স্বামী আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে পেনাল কোর্ট ১৮৬০ এর ৩০২ ধারায় যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ডসহ ১ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং পেনাল কোর্ট ১৮৬০ এর ২০১ ধারায় ৫ বছরের সশ্রম কারাদন্ডসহ ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছে বিজ্ঞ আদালত।

বুধবার দুপুরে গাইবান্ধার অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. গোলাম ফারুক এই আদেশ দেন। আবদুর রশিদ পলাশবাড়ী উপজেলার গোয়ালপাড়া গ্রামের মো. মমতাজ আলীর ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২৫ জুলাই পলাশবাড়ী উপজেলার গোয়ালপাড়া গ্রামের আবদুর রশিদ তার নিজ বাড়িতে স্ত্রী সামিনা বেগমকে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে হত্যা করে। পরবর্তীতে হত্যাকান্ডকে আড়াল করার জন্য স্ত্রীর মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে আত্মহত্যা বলে প্রচারনা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহত সামিনা লাশ উদ্ধার পূর্বক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির সময় নিহতের শরীরে ও মাথায় আঘাতের চিহ্ন দেখতে পায়। পরে পুলিশ নিহত সামিনার লাশ ময়না তদন্তের জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। এই ঘটনায় পলাশবাড়ী থানার এসআই জ্যোতিশ চন্দ্র বর্মণ বাদি হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনায় নিহতের স্বামী আবদুর রশিদকে আটক করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। জবানবন্দিতে আবদুর রশিদ স্ত্রীকে হত্যার কথা স্বীকার করে। পরবর্তীতে পুলিশ আদালতে স্ত্রী সামিনাকে হত্যার অভিযোগে আবদুর রশিদের বিরুদ্ধে পেনাল কোর্ট ১৮৬০ এর ৩০২ ও পেনাল কোর্ট ১৮৬০ এর ২০১ ধারায় চার্জশীট দাখিল করে। মামলায় বিজ্ঞ আদালত ঘটনার বর্ণনা বিশ্লেষণ পূর্বক স্বাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণহ রাষ্ট্র ও আসামী পক্ষের যুক্ততর্ক শেষে আসামী আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে পেনাল কোর্ট ১৮৬০ এর ৩০২ ধারা এবং পেনাল কোর্ট ১৮৬০ এর ২০১ ধারার অপরাধ প্রমানিত হওয়ায় অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. গোলাম ফারুক আসামীর উপস্থিতিতে আজ এই রায় দেন। সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এপিপি এ্যাড. ওবায়দুর রহমান এবং আসামি পক্ষে এ্যাড. সৈয়দ শামস-উল আলম হীরু ও সিরাজুল ইসলাম বাবু।

Comments

comments

Leave a Reply