সর্বশেষ সংবাদ

লাখো মুসল্লির আকুতিতে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

গোবিখবর প্রতিবেদক: আত্মশুদ্ধি, নিজ নিজ গুনাহ মাফ, সব বালা-মুসিবত থেকে হেফাজত ও রহমত প্রার্থনায় আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের সন্তুষ্টি লাভের আশায় লাখো মুসল্লির আকুতিতে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ও শেষ পর্ব।

আজ রোববার (১৯ জানুয়ারি) বেলা ১১টা ৪৫ মিনিটে শুরু হয় দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত। এ পর্বে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন ভারত থেকে আগত মাওলানা জমশেদ। এর আগে ইজতেমার প্রথম পর্বে মোনাজাত পরিচালনা করেন বাংলাদেশের মাওলানা জুবায়ের। এই সময় আখেরি মোনাজাতে তুরাগ তীরে এক অভিনব দৃশ্যের অবতারণা হয়। আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে পুরো ইজতেমা ময়দান। মোনাজাতে বিশ্ব মুসলিমের সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। সেই সঙ্গে বাংলাদেশের জন্যও দোয়া করা হয়।

ভোর থেকে দিক-নির্দেশনামূলক বয়ানের পর লাখ লাখ মানুষের প্রতীক্ষার অবসান ঘটে বেলা ১১টা ৪৯ মিনিটে। জনসমুদ্রে হঠাৎ নেমে আসে পিনপতন নীরবতা। যে যেখানে যে অবস্থায় ছিলেন ঠিক সে সেখানে দাঁড়িয়ে কিংবা বসে হাত তোলেন মহান আল্লাহর রাব্বুল আলামিনের দরবারে। চোখ ভর্তি কান্নায় বুক ভাসান তারা। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে একটাই চাওয়া সকল প্রকার বালা-মুসিবত থেকে হেফাজত ও রহমত প্রার্থনা। পবিত্র কোরআনে বর্ণিত দোয়ার আয়াত ও উর্দু ভাষায় ১৭ মিনিট ব্যাপী এ মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা জমশেদ। মুঠোফোন ও স্যাটেলাইট টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারের সুবাদে দেশ-বিদেশের আরও লাখ লাখ মানুষ একসঙ্গে হাত তোলেন মহান আল্লাহর দরবারে। আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে টঙ্গী, গাজীপুর, উত্তরাসহ চারপাশের এলাকার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কলকারখানা, মার্কেট, বিপণীবিতান, অফিসসহ সবকিছু ছিল বন্ধ।

Comments

comments