1. rsumon83@gmail.com : Gobi Khobor : Mostofa Kamal
  2. sumon@gobikhobor.com : SUMON KAMAL : SUMON KAMAL
  3. ariful.bpi2012@gmail.com : Ariful Islam : Ariful Islam
  4. omar@gobikhobor.com : omar Faruk : omar Faruk
  5. rsaidul34@gmail.com : Saidul Islam : Saidul Islam
  6. rmmksumon@yahoo.com : SUMON KAMAL : SUMON KAMAL
সুন্দরগঞ্জে শিশু নির্যাতন মামলার চার আসামি জেল হাজতে - গোবি খবর
বুধবার, ০৩ জুন ২০২০, ০৬:৩৮ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
সাতক্ষীরা থেকে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক অভয়নগরে পানিতে ডুবে জমজ দুই ভাইয়ের মৃত্যু ১৫ জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে প্রাথমিক বিদ্যালয় সুন্দরগঞ্জের সড়কগুলোয় ধান খড়ের স্তুব ঝুঁকিতে পথচারি সুন্দরগঞ্জে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক ডাক্তার করোনায় আক্রান্ত সুন্দরগঞ্জে প্যারামেডিকেল ডাক্তার এসোসিয়েশনের ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনা আক্রান্ত একজনের মৃত্যু ফুলবাড়ী প্রেসক্লাবের বিদায়ী ও নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির যৌথসভা অনুষ্ঠিত চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিপুল পরিমান নকল ও মেয়াদউত্তীর্ণ কসমেটিকদ্রব্য জব্দ, আটক এক এসএসসি’তে শতভাগ পাস অধিকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পলাশবাড়ীর শিশু কানন স্কুল এন্ড কলেজ

সুন্দরগঞ্জে শিশু নির্যাতন মামলার চার আসামি জেল হাজতে

  • আপডেট করা হয়েছে : মঙ্গলবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২০
  • ১৬ বার পঠিত

মোঃ মোজাফ্ফর হোসাইন, সুন্দরগঞ্জে (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় গরু চুরির অভিযোগে মধ্যযোগিয় কায়দায় শিশু নির্যাতন মামলার চার আসামির জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠিয়ে বিজ্ঞ বিচারক। গতকাল মঙ্গলবার মামলার আসামিরা গাইবান্ধা চিফজুটিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে জামিনের আবেদন করে। শুনানি শেষে মামলার আসামি আইজল ইসলাম, রিয়াজুল ইসলাম, ফজল মিয়া ও নাজমুল ইসলামের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নিদের্শ দেন বিচারক। বাকি আসামিরা জামিনে মুক্ত হয়েছে।

গত শুক্রবার দিবাগত রাতে একই গ্রামের নজু মিয়ার গরু চুরি অপরাধে স্থানীয় রিয়াজুল ইসলাম, নাজমুল ইসলাম, ফজলু মিয়া শিশু রাফিকুল ইসলামকে (১৪) বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায় এবং রাতে ফজলের বাড়িতে রেখে দেয়। পরদিন শনিবার সকালে স্থানীয় তনু প্রামানিকের বাড়ির উঠানে বৈঠক বসে। সেখানে সালিশী সিদ্ধান্ত মোতাবেক চুরির অপরাধে রাফিকুলকে বেঁধে পায়ের তালায় পিটানো হয়। পরে অসুস্থ রাফিকুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায় স্বজনরা। রাফিকুল ইসলাম ওই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। রাফিকুলের পরিবারের দাবি, পূর্ব শত্রæতার জেরধরে রাতে জোর করে তাকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে রাতে এক দফা মারধর করে ফজলের ঘরে বন্দি করে রাখে। পরদিন সালিশী বৈঠকে মধ্যযোগিয় কায়দায় তাকে পিটানো হয়। ফেসবুকে সালিশ বৈঠকে শিশু রাফিকুলকে নির্যাতনের ছবি ভাইরাল হলে বিষয়টি প্রশাসনসহ সকলের নজরে আসে। এনিয়ে সোমবার দিবাগত রাতে রাফিকুলের বড় ভাই রফিকুল ইসলাম বাদি হয়ে ১৩ জন নামীয় এবং ১০ হতে ১২ জন অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় মামলা করে। রাতেই পুলিশ দুইজনকে গ্রেফতার করে এর মধ্যে হতে একজন জামিনে মুক্ত হয়েছে। মামলা তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই মোস্তফা মিয়া জানান, ১৩ জন আসামির মধ্যে ৯ জন আসামি জামিনে মুক্ত হয়েছে বিষয়টি আমি জেনেছি, তবে এখন পর্যন্ত আদালতের কোন কাগজপত্রাদি পায়নি।

Comments

comments

এই খবর সবার সাথে শেয়ার করুন

এই ধরনের আরও খবর
© স্বত্ব গোবিখবর ২০১৩-২০২০

কারিগরি সহযোগিতায় Pigeon Soft