সর্বশেষ সংবাদ

গাইবান্ধায় সরকারি অর্থায়নে স্টেডিয়ামে অত্যাধুনিক শরীর চর্চা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা

আরিফ উদ্দিন, স্টাফ রিপোর্টার, গাইবান্ধা থেকে: কিশোর-কিশোরীদের শারীরিক ও মানসিক উৎকর্ষ সাধনে গাইবান্ধা শাহ আব্দুল হামিদ স্টেডিয়ামের গ্যালারীর পেছনে পরিত্যক্ত স্থানে গড়ে তোলা হয়েছে একটি অত্যাধুনিক শরীর চর্চা কেন্দ্র (জিম)। গাইবান্ধা সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা উত্তম কুমার রায় উদ্যোগী হয়ে উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে ব্যতিক্রমধর্মী এই শরীর চর্চা কেন্দ্রটি বাস্তবায়ন করেছেন।

কোন উদ্যোগ যদি মহৎ হয় তবে অর্থ স্থান বা কোন বাধাই যে তার অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় না। স্টেডিয়ামের অব্যবহৃত পরিত্যক্ত স্থানে ‘ইউএনও জিম’ নামে এধরণের একটি ব্যয় বহুল এবং সকল প্রকার উন্নতমানের সরঞ্জামে সমৃদ্ধ শরীর চর্চা কেন্দ্র স্থাপন করার মাধ্যমেই তা প্রমাণিত হয়েছে। উলে­খ্য, দীর্ঘদিন থেকে গাইবান্ধায় স্বল্প ব্যয়ে নারী ও পুরুষের ব্যবহার উপযোগী একটি শরীর চর্চা কেন্দ্র প্রয়োজনীয়তা এবং দাবি উস্থাপিত হলেও তা বাস্তবায়িত হচ্ছে না। কিন্তু বর্তমান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্র্তা যেহেতু নিজেই ছাত্রজীবন থেকে শরীর চর্চায় পারদর্শি এবং উৎসাহী সে কারণে তিনি সরকারি অর্থায়ন ছাড়াও নিজস্ব অর্থ ব্যয়ে এই শরীর চর্চা কেন্দ্রটি গড়ে তোলেন।

এখানে শরীরচর্চার জন্য অত্যাধুনিক সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে- ফোর স্টেশন মাল্টি সেট, প্রেস মেশিন, ক্যাবল ক্রসবার সহ আরো অন্যান্য শরীর চর্চা সামগ্রী। এখানে বর্তমানে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ভর্তি ফি ফ্রি করে দেয়া হয়েছে। আর মাসে ২০০ টাকা ফি নির্ধারিত করে দেয়া হয়েছে। এই জিমে বর্তমানে দুইজন প্রশিক্ষক ও একজন নাইট গার্ড নিয়োজিত রয়েছেন। দৈনিক বিকাল পাঁচটা থেকে রাত্রি আটটা পর্যন্ত এই জিমে শরীর চর্চা অব্যাহত থাকে। ইতিমধ্যেই বেশ কিছু ছেলেমেয়ে ভর্তি হয়েছেন শুধু তরুণ তরুণী যুবকরাই নন অনেক মধ্যবয়স্ক নারী-পুরুষ এখানে শরীরচর্চা করার জন্য আসছে।

এই শরীর চর্চা কেন্দ্রের উপদেষ্টা পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা জাতীয় সংসদের হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি এমপি স¤প্রতি এটি উদ্বোধন করেন। উপদেষ্টা পরিষদে পদাধিকার বলে থাকবেন- জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ স¤পাদক, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। এছাড়া পরিচালনা পরিষদের মধ্যে রয়েছেন- পদাধিকার বলে সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উত্তম কুমার রায় এবং সদস্য হিসেবে থাকবেন সদর উপজেলার এসিল্যান্ড, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, কৃষি কর্মকর্তা, উপজেলা প্রকৌশলী সহ অন্যান্য কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উত্তম কুমার রায় বলেন, গাইবান্ধায় এই প্রথম প্রতিষ্ঠিত শরীর চর্চা কেন্দ্রের প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে নতুন প্রজন্মকে সুস্থ সুন্দর দেহ গঠনে সহায়তা প্রদান সহ মাদক থেকে মুক্ত রাখতে ও সুস্থ চেতনায় তাদের গড়ে তোলার সুযোগ সৃষ্টি করা। কেননা সুস্বাস্থ্য ও সকল কর্মের উদ্দীপনা তাদের মাদক মুক্ত রাখবে এবং উন্নত শারীরিক গঠন, স্বাস্থ্য সচেতন ও মানসিক উৎকর্ষ সাধনে নতুন প্রজন্মের গড়ে ওঠার ক্ষেত্রে এ ধরণের জিম অত্যান্ত প্রয়োজন।
স¤প্রতি গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবে একটি প্রতিনিধি দল ওই শরীর চর্চা কেন্দ্র (ইউএনও জিম) সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। তারা হচ্ছেন- গাইবান্ধা প্রেসক্লাবে প্রতিনিধি দলের মধ্যে প্রেসক্লাবের সভাপতি কেএম রেজাউল হক, সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সাবু, কোষাধ্যক্ষ আব্দুল মান্নান চৌধুরী, সাহিত্য সাংস্কৃতিক সম্পাদক উত্তম সরকার প্রমুখ।

Comments

comments