সর্বশেষ সংবাদ

মধুপুরে নার্গিস হত্যাকান্ডে জড়িতদের বিচারের দাবীতে মানববন্ধন

হাফিজুর রহমান, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের মধুপুরে নার্গিস আক্তার (১৬) নামের এক স্কুলছাত্রী কিশোরী বধুকে ধর্ষণ পর হত্যার ঘটনায় দায়ীদের চিহ্নিত ও আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবিতে বেসরকারী সংস্থা নিজেরা করির সহায়তায় মানববন্ধন এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে ভুক্তভোগী পরিবারসহ স্থানীয়রা।

বুধবার দুপুরে মধুপুর বাস্ট্যান্ডের আনারস চত্ত¡রে স্থানীয় নাগরিক সমাজের ব্যানারে এ নিয়ে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর ওই স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে।

মানববন্ধনে পৌর মেয়রসহ জন-প্রতিনিধি, রাজনীতিক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, গণমাধ্যমকর্মি এবং কর্মসূচি সহায়তাকরি উন্নয়ন সংগঠন নিজেরা করি’র কর্মকর্তা, ভূমিহীন সমিতির নেতৃবৃন্দ, উপস্থিত ছিলেন।
ভূমিহীন সমিতি’র সভাপতি আ. মান্নানের সভাপতিত্বে আমজাদ হোসেন আকন্দের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন, মধুপুর পৌর মেয়র মাসুদ পারভেজ, সচেতন নাগরিক কমিটি সনাক সভাপতি অধ্যক্ষ বজলুর রশীদ খান, গোলাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা খান, মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, প্রধান শিক্ষক খোরশেদ আলম, বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিপি’র রামকৃষ্ণ দাস, নিজেরা করির বিভাগীয় সমন্বয়ক ফজলুল হক, গণমাধ্যম কর্মি এমএম শহীদ, নিতহ নার্গিসের বাবা নাসির উদ্দিন, নিহতের খালা মর্জিনা, ভূমিহীন নেতা কছিম উদ্দিন, হাফিজা প্রমুখ।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মধুপুর উপজেলার গোলাবাড়ীর কৃষ্ণপুর নেকীবাড়ী গ্রামের নিহত নার্গিস রিক্সামিস্ত্রি নাসির উদ্দিনের মেয়ে। ৭ম শ্রেণিতে পড়াকালীন পাশের ধনবাড়ী উপজেলার বাঘিলের কান্দিপুর গ্রামের সাহা আলীর ছেলে মনিরের সাথে প্রেম করে বিয়ে হয় নার্গিসের। বছর না ঘুরতেই তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ শুরু হয়। এর জেরে ৭/৮মাস আগে নার্গিস স্বামীকে ডির্ভোস দিয়ে বাবার বাড়িতে ফিরে আসে।

তার পবিবার তাকে মনিরের বাড়িতে নেয়ার চেষ্টা চলছিল। এর মধ্যে গত ১১ সেপ্টেম্বর রাতে নিখোঁজ হওয়ার দুই দিন পর ১৩ সেপ্টেম্বর দুপুরে বাড়ির পাশের ধান ক্ষেত থেকে উলঙ্গ ও বিকৃত নার্গিসের লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ উদ্ধার করে পুলিশ বাবা নাসিরকে বাদী করে অজ্ঞাত আসামী উল্লেখ করে মামলা নেয়। এ নিয়ে একাধিক গণমাধ্যামে সংবাদ প্রকাশ হয়।

Comments

comments