সর্বশেষ সংবাদ

সরিষাবাড়ীতে যৌতুক না পেয়ে লোহার পাইপ দিয়ে স্ত্রীকে পিটিয়েছে স্বামী

রাইসুল ইসলাম, সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি:
জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে লোহার পাইপ দিয়ে স্ত্রীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার উপজেলার আওনা ইউনিয়নের জগন্নাথগঞ্জঘাট জনসেবা হসপিটালে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে-উপজেলার আওনা ইউনিয়নের জগন্নাথগঞ্জ ঘাটে জনসেবা হসপিটাল মালিক মেন্দারভেড় গ্রামের মৃত আব্দুল হালিমের ছেলে লিয়াকত আলী খানের ২টি স্ত্রী থাকার পরও ২০১৪ সালে প্রতারণামুলকভাবে একই গ্রামের মৃত ফজলুল হকের মেয়ে পলি আক্তারকে বিয়ে করেন। বিয়ের কিছু দিন পর বিভিন্ন সময় তার ৩য় স্ত্রী পলি আক্তারের নিকট যৌতুক দাবী করে আসছিল। এ নিয়ে দু,জনের মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকতো।

এ ধারাবাহিকতায় গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১১ টায় লিয়াকত আলী খান তার স্ত্রী পলি আক্তারের নিকট ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে। পলি আক্তার যৌতুক এনে দিতে অস্বীকার করলে তার বিরুদ্ধে পরকীয়া ও হাসপাতালের অর্থ আতœসাতের মিথ্যা অভিযোগ এনে স্বামী লিয়াকত আলী খান তার স্ত্রীকে লোহার চিকন পাইপ দিয়ে এলোপাথাড়ী পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে গুরুতর আহত করে। একই ঘটনার জের ধরে গত শনিবার জনসেবা হসপিটালের ৩য় তলায় তাদের দু জনের মাঝে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে লিয়াকত আলী খান ২য় দফায় তার স্ত্রী কে মারধর করে গুরুত্বর আহত করেন। এ সময় পলির কান্নাকাটিতে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে লিয়াকত আলী খান পালিয়ে যায়। এ নিয়ে স্থানীয় লোকজনের মাঝে ক্ষোভ ও সমালোচনার ঝড় ওঠে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে তারাকান্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে আসে। পরে পলি আক্তার কে তার মা লিলি বেওয়ার নিকট হস্তান্তর করেন। পরে পলি আক্তার কে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
এ ব্যাপারে লিয়াকত আলী খান মারপিটের ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমার স্ত্রী পলি আক্তার হাসপাতালের মোটা অংকের অর্থ বিনা রশিদে চুরি করেছে।

এ বিষয়ে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ মাজেদুর রহমান বলেন, স্ত্রীকে মারপিট করার ঘটনায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দোষীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

Comments

comments

Leave a Reply