সর্বশেষ সংবাদ

গোবিন্দগঞ্জে আলোচিত সাঁওতাল হত্যা মামলায় বাদীর পক্ষের নারাজি

আরিফ উদ্দিন, স্টাফ রিপোর্টার, গাইবান্ধা থেকে: গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে আলোচিত আদিবাসি সাঁওতাল হত্যার সন্দেহভাজন মূল ১১ জন আসামীকে বাদ দিয়ে এবং আসামীকে মামলার স্বাক্ষী করে গাইবান্ধা পিবিআই পুলিশ কর্তৃক আদালতে চাজশীট দাখিল করায় সাঁওতালদের পক্ষ থেকে আদালতে নারাজি দায়ের করা হয়েছে। বুধবার গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র চীফ জুডিশিয়াল (চৌকি) পার্থ ভদ্র এর আদালতে বাদী পক্ষের আইনজীবি এ্যাড. শাকিল এই নারাজি দায়ের করেন। এতে অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোট বার এসোসিয়েশনের সদস্য এ্যাড. জেড আই খাঁন পান্না, এ্যাড. রকিবুল হাসান সিরাজী, এ্যাড. মুরাদুজ্জামান রব্বানী, গাইবান্ধা বার এসোসিয়েশনের আইনজীবি এ্যাড. সিরাজুল ইসলাম বাবু, এ্যাড.ফয়জুল আলম রনন।

আদালত বাদী পক্ষের নারাজি আমলে নিয়ে আগামী ৪ ঠা নভেম্বর শুনানির দিন ধার্য্য করেন। আদালত থেকে বের হয়ে গোবিন্দগঞ্জ বার এসোসিয়েশনের সামনে বাদী পক্ষের আইনজীবি এ্যাড. জেড আই খাঁন পান্না সাংবাদিকের বলেন, আদিবাসী সাঁওতাল হত্যায় পিবিআই দীর্ঘ ৭ মাস তদন্ত করে যে চার্জশীট আদালতে দাখিল করেছে তাতে প্রধান সন্দেহভাজন ১১ জন আসামীকে বাদ দেয়া হয়েছে। এখানে নিহতের ১৫ মাস পর লাশ তোলা হয় ময়না তদন্ত করার জন্য। এরপরও পিবিআই মামলার আসামীকে স্বাক্ষী বানিয়েছে। তৎকালিন সময়ে এখানকার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিচার বিভাগীয় তদন্ত করেছে। সে রির্পোটেও বেরিয়ে এসেছে কারা বাড়ীঘরে আগুন লাগিয়ে ছিলো। আমরা বিজ্ঞ আদালতে এসব তুলে ধরেছি। বিজ্ঞ আদালত আমাদের কথাগুলো শুনেছেন এবং আগামী ৪ নভেম্বর শুনানীর দিন ধার্য্য করেছেন। আমরা আপাততো এখানেই সন্তুষ্ট।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর রংপুর সুগার মিলের সাহেবগঞ্জ বাগদা ফার্মের দখলকৃত জমি থেকে আদিবাসী সাঁওতাল উচ্ছেদ অভিযানে পুলিশের গুলিতে ৩ জন সাঁওতাল নিহত হয়। এ ঘটনায় ওই সময় রামপুর মাহালীপাড়া গ্রামের মৃত সমেশ্বর মুরমু’র ছেলে শ্রী স্বপন মুরমু বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-২৩, তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১৬ ইং। একই ঘটনায় বুজরুবেড়া আরোজী মিশনপাড়া গ্রামের মেহলে হেমরম পুত্র থোমাস হেমরম নামীয় আসামী করে মহামান্য হাইকোর্টে রিট পিটিশন দাখিল করেন। বিজ্ঞ হাইকোর্টের নির্দেশে এজাহারটি গোবিন্দগঞ্জ থানা আমলে নেয়। পরবর্তিতে দু’টি এজাহার একত্র করে তদন্ত সাপেক্ষে গাইবান্ধা পিবিআই এর সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল হাই ২৩ জুলাই ২০১৯ ইং তারিখে ৯০ জনের নাম উল্লেখ করে আদালতে চাজশীর্ট দাখিল করেন।

Comments

comments

Leave a Reply