সর্বশেষ সংবাদ

ধামইরহাটে নিখোঁজ আদিবাসী কৃষকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

All-focus

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ
নওগাঁর ধামইরহাটে নিখোঁজ আদিবাসী কৃষকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুকুরে গলিত লাশ ভেসে ওঠলে গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পরিবার লোকজন গিয়ে লাশটি নিখোঁজ আদিবাসী কৃষক মানুয়েল হেমরম বলে সনাক্ত করেন। পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরণ করেছে।

থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার দুপুরে ধামইরহাট ইউনিয়নের অন্তর্গত নেউটা গোপায়ডাঙ্গা গ্রামের পশ্চিম মাঠে দুইপাড়ার মাঝখানে গোপায়পুকুরের পাশ দিয়ে কৃষকরা মাঠ কাজ করে বাড়ী ফিরছিল। এ সময় ওই পুকুর থেকে দূর্গন্ধ বের হচ্ছিল। কচুরীপনা ভরা পুকুরের মাঝখানে দুই পা ও মাথা বের হওয়া লাশ দেখতে পায় কৃষকরা। তাৎক্ষনিক কৃষকরা মানুয়ের হেমরমের পরিবারকে বিয়ষটি জানায়। মানুয়েলের ভাতিজা জয়ন্ত হেমরম ও ফ্যান্সিস হেমরম এবং তার পরিবার লাশের পড়নের পোষাক দেখে সনাক্ত করেন। পরবর্তীতে ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো.জাকিরুল ইসলাম,ওসি-২ (তদন্ত) মাহবুব হোসেন ও ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামানের উপস্থিতিত্বে লাশটি পুকুর থেকে ওঠানো হয়। নিহত মানুয়েল হেমরম নেউটা গোপায়ডাঙ্গা গ্রামের মৃত ছাতু হেমরমের ছেলে। মানুয়ের হেমরমের একমাত্র সন্তান তার মেয়ে স্মৃতি হেমরম বলেন,গত ২৩ জুলাই মঙ্গলবার সকালে তার বাবা বাড়ী থেকে বের হয়ে আর ফিরেনি। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ খবর নেওয়ার পরও তার কোন সন্ধান মেলেনি। মানুয়েলের বড় ভাই থমাস হেমরম (৮০) বলেন,তার ভাই কোন প্রকার নেশা করতো না। তাছাড়া তার সাথে কারও কোন ঝগড়া বিবাদ ছিল না। তিনি পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি ছিলেন। এব্যাপারে ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো.জাকিরুল ইসলাম বলেন,লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

Comments

comments