সর্বশেষ সংবাদ

অধ্যক্ষ সিরাজের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির মামলা ট্রাইব্যুনালে

মির : ফেনীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন হয়রানির মামলাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

বুধবার (৩ জুলাই) ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. জাকির হোসাইনের আদালতে মামলাটির অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) বিচারক মামলাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করেন। তবে অভিযোগপত্র গ্রহণ করা হবে কি না সে বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য করা হয় ৯ জুলাই । দাখিল করা ১০ পৃষ্ঠার অভিযোগপত্রে সোনাগাজী ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।

নুসরাতকে যৌন হয়রানি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও পিবিআইয়ের ফেনী শাখার পরিদর্শক শাহ আলম জানান, ২৭ মার্চ অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলা নুসরাতকে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে শ্লীলতাহানি করেন। পরে নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ অধ্যক্ষকে আটক করে। এক পর্যায়ে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে মামলাটি পিবিআইকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়। তদন্তের ৯৬ দিনের মাথায় অভিযোগপত্র দাখিল করলেন তারা। ১০ পৃষ্ঠার অভিযোগপত্রে চিকিৎসক ও পুলিশসহ মোট ২৯ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।

এছাড়া, নুসরাতকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় বৃহস্পতিবার(০৪ জুলাই) ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে মাদরাসাটির নৈশ প্রহরী মো. মোস্তফা সাক্ষ্য দিয়েছেন। পাশাপাশি আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাকে জেরাও করেছেন।

গত ২৭ মার্চ সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার আলিম পরীর্ক্ষাথী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নিপীড়নের দায়ে মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ৬ এপ্রিল ওই মাদরাসা কেন্দ্রের সাইক্লোন শেল্টারের ছাদে নিয়ে অধ্যক্ষের সহযোগীরা নুসরাতের শরীরে আগুন ধরিয়ে দেয়। টানা পাঁচদিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে মারা যায় নুসরাত জাহান রাফি।

Comments

comments