সর্বশেষ সংবাদ

সাদুল্যাপুরের ভাতগ্রামের গ্রামীণ সড়কের কালভার্ট এখন মরণ ফাঁদ

জিল্লুর রহমান পলাশ, গাইবান্ধা: গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়নের ঝাউলার বাজার, সাদুল্যাপুর টু ঠুঁটিয়াপুকুর সংযোগ সড়কের এখন করুণ দশা। কাঁচা এ সড়কের একমাত্র কালভার্টটিও ভাঙ্গা। ফলে চারটি গ্রামসহ আশপাশের মানুষের যাতায়াত ও পণ্য পরিবহনে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

ভাঙা এ কালভার্টের অবস্থান ওই সড়কের তরফ আল কমিউনিটি ক্লিনিক হইতে ৫০ গজ দুরে। তরফ আল গ্রামের পাশের এলাকাটি গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনের এমপি ডা. মো. ইউনুস আলী সরকারের। কালভার্টটি পারাপারে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকার বাসিন্দাদের।

স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে কালভার্টের ছাদের অংশ ভেঙে গেছে। ভেঙে যাওয়া অংশটি বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ভাঙা কালভার্টের উপর দিয়ে প্রতিদিন ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল করছে এলাকাবাসী। তবে এরআগে কালভার্ট নির্মাণে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার নিম্নমাণের সামগ্রী ব্যবহার করছে। এ কারণে ১০-১৫ বছর না যেতেই কালভার্টের ছাদ ভেঙে গেছে। শুধু ভেঙে যাওয়া অংশই নয় পুরো কালভার্টি এখন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

স্থানীয় এলাকার বাসিন্দা ছামিউর রহমান বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের এ কাঁচা সড়ক ধরেই আশপাশের স্কুলকলেজে আসতে হয়। হাটবাজারে কৃষিপণ্য আনা নেয়া হয় এ পথেই। কালভার্টটির ছাদের অংশ বিশেষ ভেঙ্গে গেছে। ফলে ভাঙ্গা কালভার্টের উপর দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে মানুষকে। তাছাড়া এ পথে যানচলাচল করছে ঝুঁকির মধ্যেই। গর্তটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। যে কোন সময় গর্তে হতাহতের আশষ্কা রয়েছে। তাই দ্রুত সমস্যা সমাধান ও নতুন কালভার্ট নির্মাণে জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় প্রশাসনের নিকট দাবি জানান তিনি’।

স্থানীয় বাসিন্দা মুজাহিদুল ইসলাম মুজাহিদ বলেন, চার গ্রামের মানুষ মাঠের ফসল, হাটবাজার ও শহরে যাওয়ার একমাত্র কাঁচা সড়কেই ভরসা। কিন্তু কালভার্টটি ভেঙে ধ্বসে পড়ায় চলাচলে অনেক অসুবিধা হয়েছে। বর্তমানে ভাঙা গর্তের কারণে সন্ধ্যা বা রাতের বেলায় পায়ে হেঁটে যেতেও মারাত্বক সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে’।

ভাতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম রেজানুল ইমলাম বাবু বলেন, জনগণের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে একটি নতুন কালভার্ট নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হবে। তবে যাতায়াত সুবির্ধাতে জরুরি ভিত্তিতে কালভার্টটি মেরামত বা ভেঙে যাওয়া গর্ত বন্ধসহ বিকল্প ব্যবস্থা করা হবে’।

এ বিষয়ে সাদুল্যাপুর ত্রাণ ও পুর্ণবাসন কর্মকর্তা (পিআইও) মনিরুজ্জামান মনির বলেন, ওই কাঁচা সড়কের ভেঙে যাওয়া কালভার্টের জায়গায় নতুন করে কালভার্ট নিমাণ করা হবে। ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের বরাদ্দে দ্রুতই কালভার্ট নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে’।

Comments

comments