সর্বশেষ সংবাদ

গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতাল হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন

আরিফ উদ্দিন, স্টাফ রিপোর্টার, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে রংপুর চিনিকলের বিরোধপূর্ন জমি নিয়ে দ্বন্দ্বে পুলিশের গুলিতে নিহত তিন সাঁওতাল হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেফতার ও তাদের বিচারের দাবিতে শনিবার উপজেলা সদরের চৌরাস্তা মোড়ে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটির উদ্যোগে এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ডা. ফিলিমন বাস্কের সভাপতিত্বে মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য প্রদান করেন, সিপিবি জেলা সভাপতি মিহির ঘোষ, বগুড়া আদিবাসী গবেষণা পরিষদ সভাপতি নজরুল হোসেন, সিপিবি গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সভাপতি তাজুল ইসলাম, উপজেলা ওয়ার্কার্স পার্টি সভাপতি এম.এ.মতিন মোল­া, ক্ষেতমজুর সমিতি উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদুন্নবী মিলন, কৃষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রঞ্জু, সাহেবগঞ্জ ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন শেখ, সাধারণ সম্পাদক জাফুরুল ইসলাম, আদিবাসী নেতা রাফায়েল হাজদা, সুফল হেমব্রম ও প্রিসিলা মুরমু প্রমূখ। এর আগে আদিবাসী-বাঙ্গালীর শত শত নারী-পুরুষ ফেস্টুন ও লাল পতাকাসহ উপজেলার মাদারপুর জয়পুর গ্রাম থেকে একটি র‌্যালি বের করে। র‌্যালিটি দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কে ৫ কিলোমিটার পায়ে হেটে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সদরে চৌরাস্তা মোড়ে পৌঁছে মানববন্ধনে অংশ নেন।
বক্তারা বলেন, বহুল আলোচিত তিন সাঁওতাল হত্যাকান্ডে জড়িত আসামীরা প্রভাবশালী হওয়ায় তিন বছর পেরিয়ে গেলেও মূল আসামীদের আজও গ্রেফতার করা হয়নি। তারা আরও বলেন, তিন আদিবাসী হত্যা, বসতবাড়ীতে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট, ভাংচুর, ক্ষতিপূরণ ও বাপ-দাদার সম্পত্তি ফেরতসহ সাত দফা দাবী দ্রুত বাস্তবায়নের তারা জোর দাবী জানান। মানববন্ধন থেকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে মুল আসামীদের গ্রেফতার করা না হলে ২৭ মার্চ গাইবান্ধা পি.বি.আই অফিস ঘেরাও করা হবে বলে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
তিন সাঁওতাল হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতারের বিষয়ে গাইবান্ধা পি.বি.আইয়ের সিনিয়র এ.এস.পি আবদুল হাই জানান, এ পর্যন্ত হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ২৫জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামী গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
উলে­খ্য, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর রংপুর চিনিকলের বিরোধপূর্ণ জমিতে পুলিশের উপস্থিতিতে চিনিকল শ্রমিক আখ কাটতে গেলে সাঁওতালরা বাধা দেন। এসময় পুলিশ, চিনিকল শ্রমিক ও সাঁওতালদের ত্রিমূখী সংঘর্ষ বাঁধে। এতে পুলিশের গুলিতে শ্যামল হেমব্রম, মঙ্গল মার্ডি ও রমেশ টুডু নামের তিন সাঁওতাল নিহত হন। আহত হন উভয় পক্ষের ৩০ জন।

Comments

comments