সর্বশেষ সংবাদ

গোবিন্দগঞ্জে রমরমা চলছে শিক্ষকদের কোচিং টিউশনি

মোস্তফা কামাল সুমন : কে মানে আইন কে আছে দেখার। যা পারো তা করো। এমনটাই চলছে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে শিক্ষকদের কোচিং টিউশনি বাণিজ্য। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা দেদারসে চালাচ্ছে তাদের কোচিং টিউশনি বাণিজ্য। গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সর্বত্র চলছে এই কোচিং বাণিজ্য। বুধবার সকাল সাড়ে নয়টায় এই প্রতিবেদন লেখার শুরুর আগেও গোবিন্দগঞ্জ পৌর শহরের বিভিন্ন জায়গায় শিক্ষকদের কোচিং টিউশনি করতে দেখা গেছে।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি মহামান্য হাইকোর্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের কোচিং করানো কে অবৈধ ঘোষণা করে। সেই সাথে কোচিং নীতিমালা ২০১২ কে বৈধ ঘোষণা করে। হাইকোর্টের এই রায়ের পর দেশের অনেক জায়গায় শিক্ষকদের কোচিং করানো বন্ধ থাকলেও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় চলছে উল্টো চিত্র। উপজেলার কোচিং টিউশনি সংশ্লিষ্ট শিক্ষকরা আরো বেশি উৎসাহ নিয়ে কোচিং চালিয়ে যাচ্ছে।

উপজেলার কোচিং সংশ্লিষ্ট অনেকের সাথে কথা বলে জানা গেছে, শিক্ষকদের কোচিং টিউশনি হাইকোর্ট কর্তৃক অবৈধ ঘোষিত হলে সাময়িক ভাবে তিন চার দিন উপজেলায় কোচিং টিউশনি বন্ধ ছিলো। মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হতে পারে এই ভয়ে শিক্ষকরা কোচিং বন্ধ করে ছিলো। কিন্তু তিন চারদিন পরেই তা স্বাভাবিক হয়ে দাঁড়ায়। আগের মতই চলতে থাকে শিক্ষকদের রমরমা কোচিং টিউশনি বাণিজ্য।

উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের কোচিং সেন্টার গুলোর চেহারা দেখলে অবাক হতে হয়ে। শ্রেণি কক্ষের চেয়েও বেশি শিক্ষার্থী নিয়ে একসাথে কোচিং করানো হচ্ছে। এক সাথে বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বিষয়ে কোচিং করানো হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের অনেকেই কেন কোচিং করছে তার কারণ বলতে পারেনি। অবাধ স্বাধীনতার কোচিং সেন্টারগুলো শিক্ষা দেওয়ার জায়গার চেয়ে বেশি আড্ডাখানা হিসেবে সমাদৃত হচ্ছে। এর সাথে যুক্ত হয়েছে রাত্রিকালীন কোচিং। কমলমতি শিক্ষার্থীদের সন্ধ্যার পর থেকে রাত ৯/১০টা পর্যন্ত কোচিং করানো হচ্ছে। যা একদিকে নিরাপত্তাহীনতার ঝুঁকি তৈরি করছে।

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে শিক্ষকদের কোচিং বন্ধে প্রশাসনের নজরদারি জরুরি হয়ে পড়েছে। সেই সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রধান সহ ব্যবস্থাপনা কমিটিকেও আন্তরিক ভাবে শিক্ষকদের কোচিং না করাতে নিরুৎসাহিত করতে হবে। সাথে সাথে শিক্ষার্থীদের কোচিংমুখী না হয়ে শ্রেণি কক্ষমুখী হতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের পাঠদান পদ্ধতি আরো প্রাণবন্ত করে কার্যকরী শ্রেণি কক্ষ গড়ে তুলতে হবে।

Comments

comments