সর্বশেষ সংবাদ

যৌনপুতুলের পতিতালয়

জার্মানির ডর্টমুন্ডে সেক্স ডল বা যৌনপুতুলের একটি পতিতালয় আছে৷ গোবিখবরের ভিজিটরদের জন্য জার্মানীর যৌনপুতুলেন পতিতালয়ের ছবি তুলে ধরা হলো।নিভৃত পল্লী: দক্ষিণ ডর্টমুন্ডের এক নিভৃত পল্লীতে এই সেক্স ডল ব্রথেল৷ নাম বরডল৷ গত বছর থেকে চালু হয়েছে জার্মানির প্রথম এই পুতুল পতিতালয়৷

বিশ্বে প্রথম নয়: জাপানেও রয়েছে সেক্স ডলের পতিতালয়৷ বার্লিনে আছে, সেক্স ডল এসকর্ট সার্ভিস৷ পুতুলগুলো সিলিকন দিয়ে তৈরি৷

ঘন্টায় ৮০ ইউরো: এই পতিতালয়ে ১২টি সিলিকন ডল আছে৷ এর মধ্যে একটি পুরুষ৷ আর একটি পুতুলের স্তন ও পুরুষাঙ্গ দু’টিই আছে৷ ঘন্টায় ৮০ ইউরো খরচ করে এমন একটি ঘরে আগ্রহীরা তাঁদের যৌনাকাঙ্খা মেটাতে পারেন৷

এভিলিন শোয়ার্ৎসের বোরডল: বোরডলের প্রতিষ্ঠাতা ৩০ বছর বয়সি এভিলিন শোয়ার্ৎস৷ তিনি এখানে যখন একটি পতিতালয় প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিলেন তখন জার্মান ভাষাভাষী পতিতা জোগাড় করতে গিয়ে বেশ বেগ পেতে হচ্ছিল৷ পরে জাপানের একটি পতিতালয়ের মডেল দেখে তিনি অনুপ্রাণিত হন৷

চীন থেকে: চীন থেকে এসব পুতুল আনেন এভলিন শোয়ার্ৎস৷ একেকটিতে খরচ পড়ে এক থেকে দুই হাজার ইউরো৷ একেকটা পুতুল ৬ মাস পর্যন্ত সেবা দিতে পারে৷ এভলিনের একজন সহকারী আছেন, যিনি পুতুলগুলো পরিষ্কার করেন, যাতে কোনো রোগ না ছড়ায়৷

সামাজিকভাবে গ্রহণযোগ্য? : প্রতিদিন ৫ থেকে ১২ জন খদ্দের আসেন বরডলে৷ শুধু এসব সিলিকন পুতুলই নয়, বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন রোবটের কথাও ভাবা হচ্ছে যৌনকাজে ব্যবহারের জন্য৷ তবে রোবোটিক্সের সঙ্গে যুক্ত বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখনো এর সময় আসেনি৷

Comments

comments